1. admin@mannancomputerbd.com : mannancomputerbd :
  2. do-not-remove@wordpress.c0m : wp_rest_api :

প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস

বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচনে বেসিক ট্রেড প্রশিক্ষণের ব্যাপক প্রসার ও মানান্নোয়ন অপরিহার্য। এ লক্ষ্য অর্জনে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ২০০১ সাল থেকে বিভাগ, জেলা, উপজেলাসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও স্ব-উদ্যোগে ও স্ব-অর্থায়নে ব্যক্তি মালিকানাধীন জাতীয় দক্ষতামান বেসিক ট্রেড প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট স্থাপনের মাধ্যমে স্বল্প মেয়াদি কারিগরি প্রশিক্ষণকে গণমানুষের দৌড় গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। কারিগরি শিক্ষা বোর্ড আবেদনকারী প্রতিষ্ঠান সরেজমিনে পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় দক্ষ জনবল কাঠামো, আসবাবপত্র, প্রাতিষ্ঠানিক অবকাঠামো, কোর্স সংশ্লিষ্ট সর্বাধুণিক যন্ত্রপাতি, আধুণিক ও আন্তর্জাতিক মানসম্মত প্রশিক্ষণ প্রদান পদ্ধতিসহ সার্বিক বিষয় যাচাই-বাচাই ও নিরীক্ষণ পূর্বক অনুমোদন প্রদান করে। এ পর্যন্ত বোর্ড অনুমোদিত বেসিক ট্রেড প্রতিষ্ঠান সংখ্যা প্রায়৩৫০০টি। ৩ মাস মেয়াদি (জানুয়ারী-মার্চ, এপ্রিল-জুন, জুলাই-সেপ্টম্বর ও অক্টোবর-ডিসেম্বর) ৪টি এবং ৬ মাস মেয়াদি (জানুয়ারী-জুন ও জুলাই-ডিসেম্বর) ২টি, প্রতি বছরে ব্যসিক ট্রেডের সর্বমোট ৬টি ব্যাচ পরিচালিত হয়। প্রতি ব্যাচে প্রায় ৬০-১৩০ হাজার শিক্ষার্থী প্রশিক্ষণ গ্রহণ পূর্বক চুড়ান্ত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। বোর্ড পরীক্ষায় কৃতকার্য শিক্ষার্থীগণ কারিগরি বোর্ড প্রদত্ত সার্টিফিকেট প্রাপ্ত হয়। এই সার্টিফিকেট দিয়ে দেশে সরকারি-বেসরকারী অফিস আদালত, কল-কারখানায় চাকরি করে ও বিদেশে এই সার্টিফিকেটের মাধ্যমে দক্ষ কর্মী হিসেবে বিবেচিত হয়ে অধিক রেমিটেন্স অর্জন করে দেশের অর্থনীতিতে ভ‚মিকা রাখছে। বর্তমানে প্রায় ১৯ কোটি মানুষের এই দেশের অন্যতম সম্পদ হলো মানব সম্পদ। এই মানব সম্পদকে দক্ষ জনশক্তিতে রূপান্তরের মূল অপরিহার্য উপাদান হলো বেসিক ট্রেডের স্বল্প মেয়াদি কারিগরি প্রশিক্ষণ। আমাদের দেশে কারিগরি প্রশিক্ষণে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত জনশক্তি অদ্যাবধি কাঙ্খিত মাত্রায়না পৌঁছালেও যেটুকু পৌঁছেছে তার অন্যতম বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের বেসিক ট্রেড ও এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকল কলাকৌশলী, বেসিক ট্রেড পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান প্রধান ও বাকাশিবো কর্মকর্তাবৃন্দের যথেষ্ট অবদান রয়েছে। বেসিক ট্রেড যথাপোযুক্ত প্রশিক্ষণের প্রদান করে কাঙ্খিত মানের দক্ষ মানব সম্পদ গড়ে তুলার মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বিদেশে কর্মরত শ্রমিকের অবদান অপরিসীম। কিন্তু প্রবাসে কর্মরত প্রবাসীদের অর্ধেকেরও বেশি অদক্ষ। দক্ষ জনশক্তি বিদেশে রপ্তানি করা সম্ভব হলে বিদেশ থেকে আহরিত অর্থের পরিমাণ কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে। বর্তমানে যে পরিমাণ দক্ষ জনশক্তি বিদেশে কাজ করে বৈদেশিক মুদ্রা দেশের চাকাকে সচল করে রেখেছে তার সিংহ ভাগই কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের বেসিক ট্রেড প্রতিষ্ঠান থেকে কারিগরি প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে দক্ষ হয়েবিদেশে কর্মরত আছে। এটি সম্ভব করে তোলার ক্ষেত্রে স্বল্প মেয়াদী কারিগরি প্রশিক্ষণের ভূমিকা অপরিসীম।

মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট এর পরিচালক এম. এ. মান্নান ২০০০ সালের মার্চ মাসের ২৩ তারিখ তৎকালীন নট্রামস, বগুঙা কর্তৃক অনুমোদিত শিবগঞ্জ বাজার, চাঁপাইনবাবগঞ্জে অবস্থিত নেহা কম্পিউটার সেন্টার (বর্তমানে বন্ধ)-এ ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার সাইন্স এন্ড টেকনোলজি কোর্সে ভর্তি হয়েকৃতিত্বের সাথে কোর্সটি সম্পন্ন করি। পরবর্তী বছর অর্থাৎ ২০০১ সালের শুরুতে একটি মাত্র কম্পিউটার নিয়েছোট্ট একটি দোকানে মান্নান কম্পিউটার্স নামে কম্পিউটার কম্পোজ ও ছবি তোলার কাজ শুরু করি। এর মধ্যেই আরো একটি বছর অতিবাহিত হয়। শিবগঞ্জে প্রশিক্ষণের চাহিদা থাকায় এবং অন্য কোন ট্রেনিং ইন্সটিটিউট না থাকায় পরবর্তী বছর অর্থাৎ ২০০২ সালে মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট নামে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করি। প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করলেও সনদপত্রের জন্য কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অনুমোদন না থাকায় পার্শ্ববর্তী একটি কারিগরি কলেজের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করাই এবং পরীক্ষার মাধ্যমে সনদপত্র প্রদান করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। বোর্ড থেকে অনুমোদন নেওয়ার প্রক্রিয়া আমার জানা না থাকায় ইতিমধ্যে অনুমোদনহীন কয়েকটি বছর অতিবাহিত করি। বর্তমান চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিটি কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ তরিকুল আলম সিদ্দিকী নয়ন মামার সহযোগিতায় ২০০৮ সালে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে যায়এবং কাবেরী মজুমদার, বিশেষজ্ঞ (গবেষনা) ম্যাডাম এর সাথে দেখা করে অনুমোদনের ব্যাপারে আলাপ আলোচনা করি। প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ অনুমোদনের জন্য মাননীয় চেয়ারম্যান মহোদয় বরাবর আবেদন করার পরামর্শ দেন। পরবর্তীতে নিয়ম তান্ত্রিক ভাবে চেয়ারম্যান মহোদয়ের বরাবরে আবেদন করি। পর্যাপ্ত পরিমান জায়গা ও ইকুইপমেন্ট বোর্ডের চাহিদা ও আমার চাহিত ট্রেড অনুযায়ী না থাকায়গত ০১/০১/২০০৯ তারিখে মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট অনুকুলে একটি মাত্র ট্রেড “কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন-৭৬” অনুমোদন দেয়। ১টি মাত্র ট্রেড অনুমোদন পাওয়ার পর অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমি নতুন রূপে প্রাথমিক প্রশিক্ষক কার্যক্রম শুরু করি। পর্যায়ক্রমে প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বৃদ্ধি করে ১। কম্পিউটার অফিস এপ্লিকেশন-৭৬ (তৃতীয় ব্যাচ), ২। ডাটাবেজ প্রোগ্রামিং- ৭৯ (দ্বিতীয় ব্যাচ), ৩। গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড মাল্টিমিডিয়া-৮১, ৪। হার্ডওয়্যার এন্ড নেটওয়ার্কিং-৭৭, ৫। ড্রেস মেকিং এন্ড টেইলারিং-২৯, ৬। ইলেকট্রিক্যাল হাউজ ওয়্যারিং-১৭, ৭। প্লাম্বিং এন্ড পাইপ ফিটিং-২৫, ৮। মোবাইল ফোন সর্ভিসিং-৩৫ এই ট্রেড গুলো অনুমোদন প্রাপ্ত হয়ে সুষ্ঠ ও মনোরম পরিবেশে মানসম্মত প্রশিক্ষণ প্রদান করে আসছি।

এছাড়াও পরবর্তী সময় আরো দুটি প্রতিষ্ঠান বোর্ড হতে অনুমোদন প্রাপ্ত হই। একটি মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং একাডেমী, কানসাট বাজার, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ নামে ০১/০৭/২০১২ তারিখে এবং অপরটি পাঠশালা কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট, রানীহাটি বাজার, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ নামে ২৮/০১/২০১৩ সালে প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে ৪টি করে ট্রেড অনুমোদন প্রাপ্ত হই। আমার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বর্তমানে প্রতিষ্ঠানে পর্যাপ্ত পরিমাণ দক্ষ শিক্ষক মন্ডলী, সুসজ্জিত কম্পিউটার ল্যাব সহ, প্রতিটা ট্রেডের ইকুইপমেন্ট সুবিধা সম্বলিত ল্যাব স্থাপন করে বোর্ডের সার্বিক সহযোগিতায় সুদক্ষ প্রশিক্ষকগণের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠান গুলো বেসিক ট্রেড কোর্সে প্রশিক্ষণ প্রদান করে বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের হাতিয়ার হিসেবে গড়ে তুলতে সহযোগিতা করে আসছে। ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা অনুযায়ী দুইটি ট্রেডে ব্র্যাক এর সাথে মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট জয়েন্ট ভেঞ্চার হিসেবে কাজ করছে। অনুমোদন প্রাপ্তির পর হইতে অদ্যবধি গুনগত মান ও ফলাফলের দিক থেকে মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের হাতে গুনা কয়কটি প্রথম সারির প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১টি। মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় সবচাইতে বেশি ট্রেডের অনুমোদন প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান। ইতিমধ্যে পরিচালক হিসেবে আমি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষক, নিরীক্ষক ও প্রধান পরীক্ষকের অর্পিত দায়িত্ব সুনামের সাথে সঠিকভাবে পালন করতে সক্ষম হই। এছাড়াও ২০১৫ সাল থেকে পরীক্ষা কেন্দ্র পরিচালনার জন্য অনুমোদন প্রাপ্ত হয় এবং বাস্তব অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার সহিত এপর্যন্ত অনেক গুলো বোর্ড পরীক্ষা সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী ও স্থানীয় প্রশাসনের সমন্বয়ে পরিচালনা করতে সক্ষম হই। উল্লেখ্য যে, ২০০৮ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তত্ববধায়নে জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরীর ব্যাপারে আমাদের প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীগণ অংশগ্রহণ করে সুনামের সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালন করেন ও সেনাবাহিনী কর্তৃক বিভিন্ন পুরস্কার প্রাপ্ত হয়।

তাই মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট এর প্রশিক্ষণের গুনগত মান ও সাফল্য ধরে রাখার জন্য কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সংশ্লিষ্ট ডেক্সের কর্মকর্তাগণ, অভিজ্ঞ শিক্ষক মন্ডলী, অভিভাবক, ছাত্র-ছাত্রীসহ সকলের আন্তরিক দোয়া, সু-পরামর্শ ও সার্বিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।

(এম. এ. মান্নান)
প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক
মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট- ২২০৫৬
মান্নান কম্পিউটার ট্রেনিং একাডেমী- ২২০৮৩
পাঠশালা কম্পিউটার ট্রেনিং ইন্সটিটিউট- ২২০৮৮
শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ।
মোবাঃ ০১৭১৭৪৫১২৯৯, ০১৭২৩২০৫০৮০
ই-মেইল- mannancomputer@gmail.com

© All rights: mannancomputerbd.com
Design & Developed BY M. A. Mannan